মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

গ্রাম আদালত বিধিমালা

 

গ্রাম আদালতের অন্তর্ভুক্ত ফৌজদারি ও দেওয়ানি মামলা সমূহ

ক) তফসিলের প্রথম অংশ: বিচারযোগ্য ফৌজদারি মামলাসমূহ        

১) দন্ডবিধির ধারা ৩২৩ বা ৪২৬ বা ৪৪৭ মোতাবেক কোন অপরাধ সংঘাটন করা, বে-আইনি জন সমাবেশ সাধারণ উদ্দেশ্যে হলে এবং উক্ত বে-আইনি জনসমাবেশে জড়িত ব্যক্তির সংখ্যা ১০ এর অধিক না হলে দন্ডবিধির ১৪৩ ও ১৪৭ ধারা, ১৪১ ধারা এর ৩য় বা ৪র্থ দফার সাথে পঠিতব্য;

            ২) দন্ডবিধির ধারা ১৬০,৩৩৪,৩৪১,৩৪২,৩৫২,৩৫৮,৫০৪,৫০৬ (প্রথম অংশ) ৫০৮,৫০৯ এবং ৫১০;

৩) দন্ডবিধির ধারা ৩৭৯,৩৮০, ও৩৮১ যখন সংঘঠিত অপরাধটি গবাদিপশু  সংক্রান্ত হয় এবং গবাদিপশুর মূল্য অনধিক  ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা হয়;

৪) দন্ডবিধির ধারা ৩৭৯,৩৮০, ও৩৮১ যখন সংঘঠিত অপরাধটি গবাদিপশু ছাড়া অন্য কোন সম্পত্তি  সংক্রান্ত হয় এবং উক্ত সম্পত্তির মূল্য অনধিক ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা হয়;

৫)দন্ডবিধির ধারা ৪০৩,৪০৬,৪১৭, ৪২০ যখন অপরাধ সংশ্লিষ্ট অর্থের পরিমাণ অনধিক ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা হয়;

৬)দন্ডবিধির ধারা ৪২৭,যখন সংশ্লিষ্ট সম্পত্তির অনধিক ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা হয়;

৭) দন্ডবিধির ধারা ৪২৮ ও ৪২৯ যখন গবাদিপশুর মূল্য অনধিক ২৫,০০০/- (পঁচিশ হাজার) টাকা হয়;

৮)Cattle Tresspass Act, 1871 (Act No. I of 1871) এর Section 24,26,27;

৯)উপরিউক্ত যে কোন অপরাধ সংঘটনের চেষ্টা বা তা সংঘাটনের সহায়তা করা । 

 

খ) তফসিলের দ্বিতীয় অংশ: দেওয়ানি মামলাসমূহ

            ১) কোন চুক্তি মোতাবেক পাওনা টাকা বা দলিল দস্তাবেজ আদায়ের মামলা;

            ২) অস্থাবর সম্পত্তি উদ্ধার বা এর মূল্য আদায় জনিত;

            ৩) গবাদি পশুর দ্বারা ক্ষতি সাধনের মামলা;

            ৪) এক বছর কালের মধ্যে কোন স্থাবর সম্পত্তি বেদখল হলে তা পুনর্দখলের মোকদ্দমা;

            ৫) অন্যায়ভাবে অস্থাবর সম্পত্তির দখল বা ক্ষতিসাধাণের জন্য ক্ষতিপূরেণর ২৫ (পঁচিশ হাজার ) মামলা;

            ৬) কৃষি শ্রমিকদের পরিশোধযোগ্য মজুরি ও ক্ষতিপূরণ ২৫ (পঁচিশ) হাজার টাকা আদায়ের মোকদ্দমা ইত্যাদি।

 

গ) গ্রাম আদালত কর্তৃক বিচারযোগ্য মামলা

            গ্রাম আদালত আইনের ৩ ধারায় তফসিলের প্রথম অংশে ফৌজদারি মামলা এবং দ্বিতীয় অংশে দেওয়ানি মামলার বিষয়াবলি বর্ণনা করা হয়েছে। অতঃপর ভিন্ন রকম বিধান না থাকলে, গ্রাম আদালত কর্তৃক বিচারযোগ্য হবে এবং কোন ফৌজদারি বা দেওয়ানি আদালতের অনুরূপ কোন মামলা বা মোকদ্দমার বিচারের একতিয়ার থাকবে না।

 

ঘ) যে সকল মামলা গ্রাম আদালত কর্তৃক বিচারযোগ্য নায়-

১) ফৌজদারি মামলার ক্ষেত্রে

            অভিযুক্ত ব্যক্তি যদি পূর্বে গ্রাম আদালত কর্তৃক আদালত আমলযোগ্য কোন অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়ে দন্ডপ্রাপ্ত হয়ে থাকেন ।

 

২) দেওয়ানি মামলার ক্ষেত্রে-

·        যে মামলায় কোন নাবালকের স্বার্থ জড়িত থাকে;

·        বিবাদের পক্ষগণের মধ্যে সম্পাদিত কোন চুক্তিতে সালিশের বা বিরোধ নিষ্পত্তির বিধান থাকে;

·        সরকার বা স্থানীয় কর্তৃপক্ষ বা কর্তব্য পালনরত কোন সরকারি কর্মচারী উক্ত বিবাদের পক্ষ হলে।


Share with :

Facebook Twitter